শিরোনাম

প্রকাশ্যে অস্ত্র ঠৈকিয়ে নুর নাহার নামে এক বিধবার জায়গা দখলের অভিযোগ উঠেছে। সীতাকুণ্ড উপজেলার কুমিরা ইউনিয়ন পরিষদের ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার হারুনুর রশীদের নেতৃত্বে ১৫/২০ জনের ভূমিদস্যু বাহিনী এই দখলের মহোৎসব চালায়। বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিধবা নুর নাহার সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে সাংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ করেন। এসময় তার পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। তবে মেম্বার হারুন দাবি করেন তিনি পুলিশের দেওয়া দায়িত্ব পালন করেছেন মাত্র। বিধবা নুরনাহার বেগম সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, শশুর মৃত আলী হোসেনের জায়গা যুগযুগ ধরে বসবস করে আসছি। আলী হোসেনের ছেলে আলী আকবর ২০০০ সালে মারা যায়। আলী হোসেনের স্ত্রী বিধবা নুরনাহার ৩ ছেলে ও ২ মেয়ে নিয়ে অভাব অনটনের সংসারে দিনযাপন করছে। এই মধ্যে স্থানীয় ভূমিদস্যুদের নজরে পড়ে আলী হোসেনের জায়গার উপর। তারা নানা ভাবে মামলা মোকদ্দমা দিয়ে হয়রানী করতে থাকে নুর নাহার ও তার পরিবারের সদস্যদের। গত ৯ সেপ্টম্বর দুপুরে স্থানীয় মেম্বার হারুনের নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারী ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী তাদের ১০শতক জায়গা দখল করে ওয়াল নির্মাণ করে। প্রতিবাদ করলে হারুন ও তার বাহিনী নুরনাহারের পরিবারের সদস্যদের তাদের অস্ত্রের মূখে জিম্মি করে রাখে। অভিযোগের বিষয়ে জানতে মুঠোফোনে হারুন মেম্বারকে ফোন করলে তিনি বলেন সীতাকুণ্ড থানার পুলিশের নির্দেশে জায়গা দখল বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। সংবাদ সন্মেলনে নুর নাহারের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তাহার ননদ তাহমিনা বেগম। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ ওয়াসিম, রুবী আক্তার, তাহমিনা বেগম, আরিফ রনি ও সজিব।